ads

হ্যালো বন্ধুরা। আজ আমি আবার আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি গুরুত্বপূর্ণ একটি টপিক। এই টপিকটি আমাদের প্রত্যেকের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমান সময়ে আমাদের দেশের কিংবা বিশ্বের এমন কোনো পরিবার বাদ নেই যেখানে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত কোনো রোগী নেই। প্রত্যেকটা পরিবারের কেউ না কেউ এই রোগে আক্রান্ত।

ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্যের জন্য ২০২২, সুগার রোগীর খাদ্য, ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্যের জন্য ডা জাহাঙ্গীর কবির, ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্যের ফল, হার্ট ও ডায়াবেটিস রোগীর খাবার তালিকা, ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য তালিকা ২০২১, কিডনি ও ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্যের জন্য, দ্রুত ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করার উপায়, ডায়াবেটিস ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য, diabetic diet plan, diabetic diet food list, diabetic diet , best diet for diabetics type, diabetic diet breakfast, diabetic diet plan to lose weight, free diabetic diet plan, diabetic diet definition, Diabetic diet list,


ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগী নিজের খাদ্যাভাসের নিয়ম না মেনে চলায় অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকে। একসময় এই ডায়াবেটিসই তার মৃত্যুর জন্য হুমকিস্বরূপ হয়ে যায়। একজন ডায়াবেটিস রোগীকে অবশ্যই একটি নির্দিষ্ট তালিকার অন্তর্ভুক্ত খাবার গ্রহণ করতে হবে নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য। আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য তালিকা সম্মন্ধে। আশা করছি এটি আপনাদের অনেক কাজে লাগবে। ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য তালিকা সম্পর্কে পুরোপুরি ধারণা নিতে শেষপর্যন্ত আমার সাথেই থাকুন।




ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য তালিকা-


আমাদের প্রায় সকলের জানা আছে বিশ্বে প্রতি সাত সেকেন্ডে একজন মানুষ ডায়বেটিস রোগে আক্রান্ত হন। ডায়াবেটিসের কারণে প্রতি বছর বিশ্বে প্রায় ১০ লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটে। পৃথিবীতে সবচেয়ে পরিচিত একটি রোগ হলো ডায়াবেটিস। এই রোগে বেশি বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকে।



মানবদেহে যখন গ্লুকোজের মাত্রা বেড়ে যায় অর্থাৎ শরীর যখন রক্তে অবস্থানরত সকল চিনিকে ভাঙতে  অসক্ষম হয় এবং রক্তে চিনির মাত্রা বেড়ে যায় তখন মানুষ ডায়াবেটিস দ্বারা আক্রান্ত হয়। যার ফলাফল হিসেবে হতে পারে হার্ট অ্যাটাক এবল স্ট্রোক এর মতো ভয়াবহ সমস্যা গুলো। আমাদের আশেপাশের অনেকেই ইতোমধ্যে ডায়েবিটিসে আক্রান্ত আবার অনেকেই এর থেকে মুক্ত রয়েছেন।




ডায়াবেটিস একটি ভয়ানক রোগ। এটি কোন সময় আমাদের শরীরে প্রবেশ করে এবং আক্রমণ শুরু করে সেটা আমরা বলতে পারিনা। তাই আমাদের উচিত আগে থেকেই সচেতনতা অবলম্বন করা। সেই সাথে আমাদের উচিত ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীদের সহায়তা করা। তাদের খাদ্য সম্পর্কে সচেতন হওয়া।




আজকের এই আর্টিকেলে আমি বিস্তারিত ভাবে বলবো আপনি যদি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হয়ে থাকেন তবে কোন খাদ্য গুলো আপনি আপনার খাদ্য তালিকায় রাখবেন আর কোন খাদ্য গুলো রাখবেন না। আমাদের এই আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়ুন আশা করছি এর দ্বারা আপনি উপকৃত হবেন।




আজকে আমি এমন কিছু খাবারের কথা বলবো যেগুলো আপনি খাদ্য তালিকায় যুক্ত করলে ডায়াবেটিস থেকে নিজেকে মুক্ত রাখতে পারবেন এবং আপনি যদি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হয়ে থাকেন তবে কোন খাবার খেলে সেটা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হবেন সে বিষয়ে আলোচনা করবো।



[★★]  দীর্ঘ সময় স্ক্রিনে চোখ রাখলে পানি আসে কি?


                    [★★]  তুলসী চায়ের উপকারিতা ও অপকারিতা


                                            [★★]    লিভার রোগীর জন্য খাদ্য তালিকা



ডায়াবেটিস কি?


প্রথমে আমরা জানবো ডায়াবেটিস সম্পর্কে। ডায়াবেটিস হলো একটি শারীরবৃত্তীয় কাজকর্ম যা কার্বোনহাইড্রেট এবং গ্লুকোজ অক্সিডেশন সম্পূর্ণভাবে সনাক্ত করা হয় না। সহজ ভাষায় বলতে গেলে ডায়াবেটিস এক ধরণের মেটাবলিক ডিজঅর্ডার বা শারীরবৃত্তীয় কাজকর্মের সমস্যা তৈরিকৃত একটি রোগ।




এই ক্ষেত্রে শরীর অগ্নাশয় এর মাধ্যমে পর্যাপ্ত ইনসুলিন উৎপাদন এবং তা ব্যবহার করতে সক্ষম হয় না। আবার মাঝেমধ্যে অনেকের ক্ষেত্রে ইনসুলিন নষ্ট হয়ে যায়। যেকোনো খাবার গ্রহণের পর আমাদের শরীর সে খাদ্যের শর্করাকে ভেঙে চিনিতে রূপান্তর করে। কিন্তু যখন শরূর ইনসুলিন উৎপাদন করতে সক্ষম হয় না তখন শরীরে চিনির পরিমাণ বেড়ে যায়। আর তখনই আমাদের শরীরে ডায়াবেটিস এর মতো রোগের সূচনা ঘটে। 




আপনারা জেনে অবাক হবেন যে জাতীয় জনসংখ্যা গবেষণা ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের একটি জরিপে দেখা যায় যে বাংলাদেশে মোট ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এক কোটি দশ লাখ। এদের মধ্যে ১৮ থেকে ৩৪ বছর বয়সী ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২৬ লাখ। ৩৫ বছর থেকে উর্ধ্বে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৮৪ লাখ। ডায়াবেটিস নেই এমন পরিবার বাংলাদেশে খুঁজে পাওয়া কঠিন।





ডায়াবেটিস কেন হয়?


ডায়াবেটিস খুবই মারাত্মক ধরনের ব্যাধি। এটাতে আক্রান্ত হলে মানুষের জীবনের নিশ্চয়তা খুব কমই থাকে। সেই সাথে যতদিন বেঁচে থাকে ততদিন নানান রকম সমস্যা ভোগ করতে হয়। আপনাদের সবার মনে হয়তো প্রায় সময় প্রশ্ন এসে থাকে, ডায়াবেটিস কেন হয়? ডায়াবেটিস হওয়ার কারণ কি?




জেনে অবাক হবেন ডায়াবেটিস হওয়ার অন্যতম কারণ হলো লাইফস্টাইল। যাদের লাইফস্টাইল ব্যাতিক্রম তাদের ডায়াবেটিস এর মতো রোগ হয়ে থাকে। যারা স্বাভাবিক ভাবে জীবনযাপন করে তারা ডায়াবেটিসের হাত থেকে নিজেদের রক্ষা করতে সক্ষম হয়। ইতোমধ্যে বিবেচনা করা হয়েছে এই রোগ হওয়ার প্রধান কারণ হলো,



  • মানসিক চাপ।


  • অনিয়মিত খাবার।


  • ব্যায়ামের অভাব।



আমরা সকলেই জানি ব্যায়াম না করার ফলে আমাদের শরীরে নানান রোগ বাসা বাঁধতে পারে। সেটা ডায়াবেটিস কিংবা অন্য রোগ হোক। আমরা যদি একটু গভীরভাবে চিন্তা করি তাহলে বুঝতে পারবো ডায়াবেটিস হওয়ার কারণ গুলো কি কি?



তাই আপনি যদি নিজেকে ডায়াবেটিস থেকে মুক্ত রাখতে চান তাহলে অবশ্যই নিজেকে মানসিক চাপ থেকে দূরে রাখতে হবে, নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে, এবং নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে।




ডায়াবেটিস এর লক্ষ্মণ কি কি?


ডায়াবেটিস কি এবং তা কেন হয় ইতোপূর্বে আমি তা আপনাদের জানিয়েছি। এখন জানাবো ডায়াবেটিস এর লক্ষ্মণ সম্পর্কে। অর্থাৎ একজন মানুষ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হলে সে কোন উপসর্গ দেখে নিজেকে ডায়াবেটিস রোগী বলে শনাক্ত করতে পারবে?



চলুন জেনে নেওয়া যাক। ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত রোগীর মোট পাঁচটি উপসর্গ দেখা দেয়। সেগুলো হলো-



  1. ক্লান্তি বা অবসাদগ্রস্ততা।


  1. দ্রুত ওজন কমে যাওয়া। 


  1. ঘন ঘন মূত্র ত্যাগ।


  1. চরম ক্ষুধা এবং তৃষ্ণা। 


  1. শুকনো ত্বক।



আপনাদের কারো মধ্যে যদি এই উপসর্গ গুলো দেখা দেয় তবে যত দ্রুত সম্ভব ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন। একটি কথা মনে রাখবেন। কখনো লোক মুখে শুনে কিংবা ফার্মেসিতে গিয়ে ঔষধ কিনে খাবেন না। এতে আপনি নিজের বিপদ নিজেই ডেকে নিয়ে আসবেন। আপনাদের অবশ্যই উচিত এই উপসর্গ গুলো নিজের মধ্যে দেখা দিলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া। এতে আপনি দ্রুত ডায়াবেটিস থেকে মুক্ত হতে পারবেন।



[★★]  দীর্ঘ সময় স্ক্রিনে চোখ রাখলে পানি আসে কি?


                    [★★]  তুলসী চায়ের উপকারিতা ও অপকারিতা


                                            [★★]    লিভার রোগীর জন্য খাদ্য তালিকা



ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য তালিকা-


এতক্ষণ আমি আপনাদের জানালাম ডায়াবেটিস রোগ সম্পর্কে। এখন জানাবো একজন লোক ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হলে সে কোন কোন খাবার গ্রহণ করবে। ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগী ডাক্তারের থেকে নেওয়া ঔষধ সেবনের পাশাপাশি নিজ খাবার সম্পর্কে পরামর্শ করলে অনেক উপকৃত হবে। এখন আমি আপনাদের এমন কিছু খাবারের সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো যেগুলো খেলে একজন ডায়াবেটিস রোগীর ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে। আর যারা সুস্থ রয়েছেন তারা ডায়াবেটিসের মতো রোগ হওয়ার হাত থেকে বাঁচবেন।




তো চলুন এই পর্যায়ে জেনে নেওয়া যাক একজন ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য তালিকায় কোন কোন খাবার থাকবে?


  • নাম্বার ১ঃ ফলমূল ও শাকসবজি।


  • নাম্বার ২ঃ শ্বেতসার সমৃদ্ধ খাবার।


  • নাম্বার ৩ঃ প্রোটিন জাতীয় খাবার।


  • নাম্বার ৪ঃ দুগ্ধজাত খাবার এবং দুধ। 


  • নাম্বার ৫ঃ তেল, মাখন এবং ঘি জাতীয় খাবার।





আপনারা সকলেই জানেন আমাদের শরীরে দৈনিক কতটুকু খাবার এবং পানি প্রয়োজন তা সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করে আমাদের বয়স, লিঙ্গ, পরিশ্রম এর উপর। আমরা আমাদের ওজনও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে কি ধরনের লক্ষণ নির্ধারণ করছি তার উপর।




একটা কথা সবসময় মনে রাখবেন। সুষম খাদ্যাভাসের অর্থ এই নয় যে অধিক পরিমাণে খাবার খাওয়া। সুষম খাদ্যাভাসের অর্থ হলো এই যে নির্দিষ্ট কিছু খাবার বেশি পরিমাণে এবং অন্যসব খাবার কম পরিমাণে খাওয়া। যাতে শরীরে সকল প্রকার পুষ্টির চাহিদা পূর্ণ হয়। 




নির্দিষ্ট একটি খাবার অধিক পরিমাণে খেলে কখনোই আমাদের দেহের পুষ্টি চাহিদা পূরণ করতে পারবে না। কারণ একেক খাবারে রয়েছে একেক ধরণের পুষ্টি উপাদান, যা আমাদের শরীরের জন্য কার্যকরী। আর তাছাড়া আমাদের শরীরে তো কেবল একটি পুষ্টি উপাদান যথেষ্ট নয়। প্রত্যেকটি পুষ্টি উপাদান পরিমাণমতো থাকা প্রয়োজন। এজন্য ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে বা আগে থেকেই ডায়াবেটিস থেকে নিজেকে দূরে রাখতে পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার, শাকসবজি, ডিম, মাছ, মাংস, লাল এবং বাদামি চালের ভাত, লাল আটার রুটি অথবা পাউরুটি, দই, ছানা, পনির ইত্যাদি খাবার পরিমাণ মতো খাওয়ার চেষ্টা করা উচিত।



ডায়াবেটিসে খাদ্যের ভূমিকা-


একজন ডায়াবেটিস রোগীর খাবার সম্পূর্ণ নির্ভর করে ক্যালরির উপর। ইতোমধ্যে আপনারা জেনেছেন খাবারের অনিয়ম, মানসিক চাপ, অস্বাভাবিক জীবনযাপন, এবং শরীরচর্চা না করার ফলে শরীরে ডায়াবেটিস এর মতো রোগের আগমন ঘটে৷ তাই ডায়াবেটিস রোগীদের উচিত সঠিক পরিমাণে খাবার গ্রহণ করা, সঠিক সময়ে খাবার গ্রহণের উপর নজর দেওয়া। ডায়াবেটিস রোগ থেকে মুক্তির জন্য খাদ্যের ভূমিকা অপরিসীম। 





ডায়াবেটিস রোগীর খাবার চার্ট-


এখন আমি আপনাদের অবগত করবো ডায়াবেটিস রোগীর খাবার চার্ট সম্পর্কে। আপনি যদি একজন ডায়াবেটিস রোগী হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই এই চার্টটি অনুসরণ করবেন। আশা করছি এর দ্বারা উপকৃত হবেন।




সময় 

খাবার

সকাল ৬ টা 

১ চামচ মেথি গুঁড়া এবং পানি।

সকাল ৭ টা   

চিনি ছাড়া এক কাপ চা সাথে                         এক থেকে দুইটা বিস্কুট। 

সকাল ৮.৩০

এক প্লেট ওটমিলস+

অর্ধেক বাতি শস্যযুক্ত   

খাবার+ চিনি ছাড়া ১০০  

 মিলি লি. ক্রিম মুক্ত দুধ।

সকাল ১০.৩০ 

১টি ফল, চিনি হীন মিল্ক বা লেবুর পানি।

দুপর বেলার খাদ্য

২টা আটার রটি, ১ বাটি ভাত, ১ বাটি ডাল, ১ বাটি দই, হাফ কাপ সয়াবিন/ পনির, সবজি,

হাফ বাটি গ্রীণ সবজি, সালাদ।

বিকেল ৪ টা

১ কাপ চা, ১-২ টা কম যুক্ত বিস্কুট বা টোস্ট।

সন্ধ্যা ৬ টা

১ কাপ স্যুপ।

রাত ৮.৩০   

২টি আটার রুটি, ১ বাটি                                  ভাত, ১ বাটি ডাল, হাফ গ্রীণ সবজি, ১ প্লেট 

সালাদ।

রাত ১০.৩০

চিনি ছাড়া ১ কাপ ক্রিম।





তো বন্ধুরা এই পর্যন্ত ছিলো আমার ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য তালিকা সম্পর্কে আলোচনা। আশা করছি আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের অনেক উপকারে আসবে এবং আপনারা এটি বুঝতে পেরেছেন। আপনাদের যদি কোনোরূপ মন্তব্য থাকে তবে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করবেন। এরকম গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট নিয়মিত পেতে আমাদের আজকের ব্লগ ডটকম ওয়েবসাইটটি ভিজিট করবেন। এতক্ষণ আমার সাথে থাকার জন্য আপনাদেরকে ধন্যবাদ।

Post a Comment

Previous Post Next Post

ads p1

ads p2