ads

হ্যালো বন্ধুরা! আজকে আমি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আমাদের জীবনে যেটির প্রয়োগ অত্যাধিক। আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো কিভাবে জমির হিসাব বের করবেন তা নিয়ে। আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লাগবে।

জমি পরিমাপ, জমির হিসাব নিকাশ, jomir hisab calculator, jomir map, land measurement, land settlement,ajkerit, ajkerinfo, ajkerblog



আপনাদের মাঝে এমন অনেকেই রয়েছেন যারা জমির সঠিক হিসাব করতে জানেন না।  তারা জমির হিসাব বের করার নিয়ম শিখতে বা জানতে চান। আপনাদের কেউ যদি জমির হিসাব একবার শিখে যেতে পারেন তবে পরবর্তীতে লোকের কাছে গিয়ে জমির হিসাব করে টাকা খোয়াতে হবে না। নিজেই নিজের জমির হিসাব খুব সহজে করে নিতে পারবেন। জমির হিসাব বের করা অত্যন্ত সহজ কাজ।



আমাদের দেশের শহরাঞ্চল থেকে শুরু করে গ্রামাঞ্চলে প্রায় সবখানেই জমি নিয়ে টুকটাক ঝামেলা থাকে। বেশিরভাগ বিশৃঙ্খলা ঘটে তাকে জমির হিসাব নিয়ে। দেশের শহরের মানুষজন জমির হিসাবপত্র ঠিক ভাবে বুঝলেও গ্রামের অধিকাংশ সহজসরল মানুষ সেটা বোঝেন না। যার কারণে উচ্চবিত্তরা এরকম সহজসরল মানুষদের থেকে জোরজবরদস্তি করে জমি দখল করে নেয়।

আর এর পেছনে মামলা করলেও সহজসরল মানুষগুলোর বেশ জরচ পড়ে যায়। 




জমির হিসাব নিয়ে সব রকমের ঝামেলা দূর করার জন্য আজ আমি চলে এসেছি। এতক্ষণে নিশ্চয়ই আপনারা বুঝে গেছেন আজ আমি কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো। আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো জমির হিসাব বের করার সহজ নিয়ম নিয়ে। আশা করছি আপনারা মনোযোগ দিয়ে শেষপর্যন্ত আমার সাথেই থাকবেন।




জমির হিসাব বের করার নিয়ম | Land measurement


একবার জমির হিসাব বের করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে গেলে সেটা দিয়ে আপনি জমির হিসাব বের করে ফেলতে পারবেন। তাই আপনাদের জমির হিসাব সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নিম্নে এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করছি-



মনে করুন আপনার একটি জমি রয়েছে যার দৈর্ঘ হলো ৫০ ফুট আর প্রস্থ হলো ৩০ ফুট। আপনি প্রথমেই মেপে নিবেন জমির হিসাব ঠিকমতো আছে কিনা। চলুন এবার আমরা জমির হিসাবটা করে ফেলি।



এখানে আমরা দৈর্ঘকে bd আর প্রস্থকে ac ধরে নিচ্ছি। তাহলে bd=50 ফুট আর ac=30 ফুট। আপনার জমিটি একটি আয়তক্ষেত্রের মতোই। এবার আমরা আয়তক্ষেত্রটির ক্ষেত্রফল বের করবো। চলুন আমরা আয়তক্ষেত্র ক্ষেত্রফলের সূত্র লিখি। 


আয়তক্ষেত্র ক্ষেত্রফল= (দৈর্ঘ × প্রস্থ)

                                 =৫০×৩০

                                 =১৫০০ বর্গফুট


বন্ধুরা এবার আপনাদের জানতে আপনাদের জমিটি ঠিক কত শতাংশ। কিভাবে জমির শতাংশ হিসাব করা যায় নিম্নে সে-সম্পর্কে আলোচনা করা হলো-




জমির শতাংশ বের করার নিয়ম | Land measurement


শতাংশ বা শতক বের করার জন্য আপনাদের এখন বের হওয়া ক্ষেত্রফলকে ৪৩৫.৬ দ্বারা ভাগ করতে হবে। কেননা ৪৩৫.৬ বর্গফুট সমান হচ্ছে ১ শতাংশ। শতাংশের হিসাবেই মোট জমির হিসাব বেরোয়।



শতক/শতাংশ=(১৫০০×৪৩৫.৬০)

                      =৩.৪৪ শতাংশ 


এবার নিশ্চয়-ই বুঝতে পেরেছেন যদি এই জমিটিকে শতাংশের হিসাব করা হয় তাহলে মোট কত শতাংশ হবে। 




জমির কাঠার হিসাব বের করার নিয়ম | Land measurement


এবার আপনাদের সাথে আলোচনা করবো কিভাবে জমির কাঠার হিসাব বের করা যায়। সর্বপ্রথম আপনাদের যেটা করতে হবে সেটা হলো জমির কাঠার হিসাব বের করার জন্য আপনাদের জমির ক্ষেত্রফলকে ৭২০ দ্বারা ভাগ করতে হবে। কেননা ৭২০ স্কয়ার ফুট বা বর্গফুট = ১ কাঠা


কাঠা= ১৫০০ ÷ ৭২০

       = ২.০৮ কাঠা


আপনার জমিটি যদি কাঠার হিসাবে ধরা হয় তবে জমিটি হবে ২.০৮ কাঠা।



বন্ধুরা আপনার জমিটি যদি একটু ভিন্ন রকম অর্থাৎ একদিক দিয়ে দৈর্ঘ বেশি হয় আর একদিক দিয়ে কম হয় এবং একদিক দিয়ে প্রস্থ বেশি হয় আর অন্যদিক দিয়ে কম হয় তাহলে যেভাবে জমিটির হিসাব করবেন তা নিম্নে আলোচনা করা হলো। 




মনে করুন আপনার জমিটির একদিকের দৈর্ঘ হচ্ছে ৬০ ফুট আর অন্যদিকের দৈর্ঘ হচ্ছে ৫০ ফুট। আর একদিকের প্রস্থ হচ্ছে ৪০ ফুট এবং অপরদিকের প্রস্থ হচ্ছে ৩৫ ফুট। এবার ক্ষেত্রফল বপর করার জন্য শুরুতেই দৈর্ঘ এবং প্রস্থের গড় নির্ণয় করতে হবে৷ 



গড় দের্ঘ এবং গড় প্রস্থ বের করার জন্য আমরা ২টি দৈর্ঘ এবং ২টি প্রস্থকে যেগ করে ২ দিয়ে ভাগ করবো। চলুন দেখা যাক


দৈর্ঘের গড়=(৬০+৫০)÷২ ফুট

                =১১০÷২ ফুট

                = ৫৫ ফুট



প্রস্থের গড়=(৪০+৩৫)÷২ ফুট

                =৭৫÷২ ফুট

                =৩৭.৫ ফুট



এবার আপনি খুব সহজেই দৈর্ঘ এবং প্রস্থ গুণ করে ক্ষেত্রফল বের করে ফেলতে পারেন।


ক্ষেত্রফল= (৫৫ × ৩৭.৫) বর্গফুট

              = ২০৬২.৫ বর্গফুট





জমির হিসাব শতক / জমির স্কয়ার ফিট বের করার পদ্ধতি 



আপনাদের এবার দেখাবো কিভাবে জমির শতাংশ নির্ণয় করতে হয়। তাহলে আপনাদের এবার প্রাপ্ত ক্ষেত্রফলকে পূর্বের ন্যায় ৪৩৫.৬ দ্বারা ভাগ করতে হবে। 


শতাংশ= (২০৬২.৫ ÷ ৪৩৫.৬)

           = ৪.৭৩ শতাংশ 





জমির কাঠা বের করার নিয়ম। জমির হিসাব নির্ণয় করার নিয়ম।


এবার আপনাদের সাথে আলোচনা করবো কিভাবে জমির কাঠার হিসাব বের করা যায়। সর্বপ্রথম আপনাদপর যেটা করতে হবে সেটা হলো জমির কাঠার হিসাব বের করার জন্য আপনাদের জমির ক্ষেত্রফলকে ৭২০ দ্বারা ভাগ করতে হবে। কেননা ৭২০ স্কয়ার ফুট বা বর্গফুট = ১ কাঠা


কাঠা= (২০৫২.৫ ÷ ৭২০) কাঠা

       = ২.৮৬ কাঠা


এক্ষেত্রে আপনার জমিটির পরিমাপ হচ্ছে ২.৮৬ কাঠা।



সর্বশেষে

আজ এই পর্যন্ত। আজকের এই আর্টিকেলটি যারা এতক্ষণ মনোযোগ দিয়ে পড়েছেন আশা করছি তারা জমির সকল রকম হিসাব সম্পর্কে জেনেছেন এবং সেভাবে কাজে লাগাতে পারবেন৷ আজকের আর্টিকেলটি কেমন লেগেছে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু। এরকম আরো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জানতে নিয়মিত আমাদের আজকের ব্লগ ডটকম ওয়েবসাইটটি ভিজিট করুন। এতক্ষণ আমার সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Tag:
জমি পরিমাপ, জমির হিসাব নিকাশ, jomir hisab calculator, jomir map, land measurement, land settlement,ajkerit, ajkerinfo, ajkerblog

Post a Comment

Previous Post Next Post

ads p1

ads p2