ads

 কম্পিউটার ফার্স্ট করার উপায়, কিভাবে কম্পিউটার ফার্স্ট করা যায়

ways to keep the computer fast


আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপ স্লো হয়ে গেছে? নিজের কম্পিউটার ফাস্ট করার উপায় খুঁজছেন। তাহলে আজকের এই আর্টিকেল আপনাকে সাহায্য করবে। বর্তমানে সবার ঘরে ল্যাপটপ বা কম্পিউটার থাকে। যখন নতুন কম্পিউটার বা ল্যাপটপ কেনা হয় অনেক ফাস্ট কাজ করে। কম্পিউটার ফাস্ট করার উপায় গুলো কি কি। কম্পিউটার স্লো হলে কি করবেন? 

আজকের এ আর্টিকেলে আমরা আপনাকে বলব কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ফাস্ট করার উপায় সম্পর্কে। কম্পিউটার বা ল্যাপটপ স্লো হওয়ার জন্য আমরা নিজেরাই দোষী। আমাদের নিজেদের জন্যই 2 1 বছর পর কম্পিউটার স্লো করে। 

আমার কাছে যখন কেউ পরামর্শ চাই। পিসি ফাস্ট করার জন্য তখন আমি বলি pc upgrade করার জন্য। আমারে আর্টিকেল পড়ার পর আপনি সম্পূর্ণ বুঝতে পারবেন কম্পিউটার স্লো করলে করণীয় কি। 


কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ফাস্ট করার 9 টি উপায়... 

কম্পিউটার হ্যাং বা স্লো 

কাজ করার সময় নানা ধরনের সমস্যা দেখায়।তাহলে আপনি চিন্তা করবেন না কম্পিউটার ফরমেট (computer format) করে দেওয়ার। কিন্তু কম্পিউটার ফরমেট করলে c drive মধ্যে যত ফাইল সফটওয়্যার আছে যত অ্যাপ্লিকেশন আছে সব ডিলিট হয়ে যায়। পিউটারের গতি যেভাবে কাজ করবেনঃ

১) অপ্রয়োজনীয়' ফাইল দূর করবেনঃ

কম্পিউটার ব্যবহার করার সময় নানা রকমের ফাইল নিজেই সৃষ্টি হয়। যা আমাদের পিসির গতি কমিয়ে দেয়। এ ধরনের অপ্রয়োজনীয়' ফাইল ডিলিট করতে হবে। ডিলেট করতে Run এ গিয়ে prefetch লিখে এন্টার চাপুন এবং সব প্রয়োজনীয় ফাইল রিমুভ করুন এর পর ℅temp℅ লিখে এন্টার চাপুন এবং সকল ফাইল রিমোভ করুন। এই কাজগুলো করতে ক্লিক text ফাইলে সেভ করুন। 

 এর পর ফাইল এর নাম পরিবর্তন করে। junk_remover.bad নামে সেভ করুন। এবার ডাবল ক্লিক করলেই অপ্রয়োজনীয়' ফাইল রিমুভ হয়ে যাবে। 

কোট bed c:\windows\prefetch \Q Rundll32.exe

Advapi32. dll processldle tasks. 


 ২)পিসিকে ভাইরাস মুক্ত রাখুনঃ

ভাইরাস আপনার পুরো পিসি নষ্ট করে দিতে পারে। সেই সাথে আপনার প্রয়োজনীয় কিছু ফাইল শেষ করে দিতে পারে। এর জন্য ভাল মানের এন্টি ভাইরাস ব্যবহার করতে পারেন।এর জন্য আমি রিকুমেন্ট করব। Microsoft security essential. এন্টিভাইরাস চেয়ে এটা অনেক বেশি পরিমাণ ভাইরাস তেইরি করতে পারে । USB Disk Security.কারন বেশির ভাগ ভাইরাস ছড়ায়।

3) ম্যালওয়্যার স্পাইয়ার দূর করুন:

মালওয়্যার স্পাইয়ার এবং শর্টকাট ভাইরাস ইত্যাদি বেশিরভাগ ছড়ায় পেনড্রাইভ হতে । পেনড্রাইভ ভাইরাস থেকে পিসিকে মুক্ত করতে ব্যবহার করতে পারেন USE Disk Security

4) Browsing history এবং cooky দূর করেন:

ব্রাউজিং হিস্টরি এবং কুকিসমূহ রেমে জমা হয়ে গতি কমাতে পারে। তাই প্রতিদিন ব্রাউজার হিস্টরি এবং কুকিসমূহ ডিলিট করুন। এজন্য যেকোনো ব্রাউজার খুলে Shift +Ctrl + delete চেপে সব কিছু ডিলিট করতে হবে।

5) অ্যানিমেশন কমিয়ে উইন্ডোজ ফাস্ট করুন:

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকারীর এক্সপেন্সিভকে বাড়িয়ে তোলার জন্য বিভিন্ন ধরনের অ্যানিমেশন ব্যবহার করা হয়। আমরা চাইলে এ ধরনের অ্যানিমেশন গুলো বন্ধ করে দিয়ে আমাদের কম্পিউটার উইন্ডোজ অপেরাটিং সিস্টেম ফাস্ট করে তুলতে পারি।

6) অস্থায়ী ফাইল মুছুন:

ইন্টারনেট ইতিহাস কুকি এবং ক্যাশেগুলি মতো স্থায়ী ফাইলগুলো আপনার হার্ড ডিস্কের জন্য একটি টন জায়গা নেন। উইন্ডোজ গুলোতে স্থায়ী ফাইল মুছে ফেলতে ccleaner ডাউনলোড করতে পারেন। আপনি ডিস্ক ক্লিন অ্যাপটি চালু করতে Start>all programs>Accessories>system Tools> Disk cleanup এ ক্লিক করে আক্স করতে পারেন।

7) নিয়মিত ড্রাইভ রিফ্রেশ করুন:

পিসিকে সচল করতে নিয়মিত ড্রাইভ রিফ্রেশ করুন করুন। এর জন্য নিচের কোডটুকু টেক্টল ফাইলে লিখে refresg bed নামে সেভ করুন। প্রতিদিন এটাকে ক্লিক করে ড্রাইভকে সচল রাখুন।Echo off cd/tree c:tree D:tree E

8) ব্রাউজার পরিবর্তন করুন:

অনেক ব্রাউজার আছে যেগুলো অধিকতর দ্রুত যেমন chrome রামের সিংহভাগ দখল করে রাখে একাধিক ট্যাব চালু রেখে । safari ব্রাউজার অধিক দ্রুত কাজ করে ।

9) অবৈধ সফটওয়্যার আনইন্সটল করে উইন্ডোজকে ফাস্ট করুন কম্পিউটারের গতি নির্ভর করে কিসের উপর:

উইন্ডোজ ফাস্ট রাখতে চাইলে

আপনাকে আপনার কম্পিউটারে অবৈধ সফটওয়্যার গুলো আনইন্সটল করতে হবে। আর সেখান থেকে প্রোগ্রাম স্যাড পিকচার অপশনে গিয়ে আপনি দেখতে পারবেন যে আপনার পিসিতে ইনস্টল করা বিশাল সফটওয়্যার গুলো আপনার প্রয়োজন হয় না। সেই সফটওয়্যার গুলো আপনি আনইন্সটল করে আপনি আপনার উইন্ডোজ কে ফাস্ট করতে পারবেন। আর এই কাজটি করার জন্য সবচেয়ে ভালো হয় পোর্টেবল সফটওয়্যার ইউজ করা।

যদি আপনার পিসি সম্পর্কে কম ধারণা থাকে

কেননা আপনি যদি ভুলবশত উইন্ডোজ সিস্টেম সফটওয়্যার গুলো কে আনইন্সটল করে দিতে পারেন যেমন Microsoft visual c+ Microsoft Dot net farmworkers Direct X Intel Graphics Driver ইত্যাদি রকম সফটওয়্যার গুলো। এছাড়াও এমন কিছু সফটওয়্যার আছে যেমন Java এগুলো না ব্যবহার করা হলেও এগুলো ডেক্সটপে ইনস্টল না করাই ভালো।

10) থার্ড পার্টি সফটওয়্যার ব্যবহার করুন:

পিসির গতি বৃদ্ধি করতে ব্যবহার করার জন্য থার্ড পার্টি সফটওয়্যার হিসেবে ccleaner একটি চমৎকার সফটওয়্যার।

 

কম্পিউটারের গতি বাড়াতে ১) star মেন্যুতে যেয়ে Run এ ক্লিক করুন একটি Run উইন্ডো ওপেন হবে। এখানে star up ট্যাবে কিক করুন এখন যেভাবে অপ্রয়োজনে প্রোগ্রাম Star Up এর সময় থাকতে চাই নাই সেগুলোর টিক চিহ্ন উঠিয়ে দিতে হবে এবার ওকে তে ক্লিক করতে হবে এবার কম্পিউটার Restart দিতে হবে। পিসি Restart হওয়ার পর system congratulation utility নাম একটু উইন্ডো আসবে। অপশন সিলেক্ট করে ওকে করতে হবে। এগুলো ব্যাবহার করলে আপনার গতি আগের মত ফিরে আসতে পারবে।

আজকে আমরা কি শিখলাম:

কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ফাস্ট করার উপায় বা কম্পিউটার স্লো হলে করণীয় কি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Post a Comment

Previous Post Next Post

ads p1

ads p2