ads

 

how-to-create-blog-site-with-mobile

আমরা কমবেশি যারা ব্লগ বা ব্লগিং এ যুক্ত তাদের সকলের কাছেকম্পিউটারবা ল্যাপটপ না থাকায় আমাদের দ্বিতীয় অপশন বেছে নিতে হয় মোবাইল। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না যে মোবাইল থেকে কিভাবে ব্লগ সাইট বানাতে হয়। কিন্তু আজ আমি এই আর্টিকেলটিতে মোবাইল দিয়ে কিভাবে ব্লগ সাইট বানাতে হয় তা শিখাবো।

 

মোবাইল দিয়ে কিভাবে ব্লগ সাইট বানাতে হয় তা আমি খুব সহজেই আপনাদের বোঝানোর চেষ্টা করব। আর এই বিষয় আমি এটি খুব সহজ ভাবে বোঝাতে পারবো এই কারণে যে আমি নিজেই মোবাইল দিয়ে সম্পূর্ণ ব্লগ বানিয়ে তা ব্যবহার করি।

blogger




সুতরাং আশা করি আমি মোবাইল দিয়ে যদি এত সুন্দর একটি ব্লগ সাইট তৈরি করতে পারি তবে আপনারাও আমার এই অভিজ্ঞতা গুলি শুনে বা বুঝে নিশ্চয়ই নিজে একটি মোবাইল থেকে ব্লগ সাইট বানাতে পারবেন।

 

 মোবাইল থেকে ব্লগ সাইট বানাতে গেলে আপনাকে অবশ্যই এই আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। কেননা আমি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত যে সমস্ত আপনার মনে থাকা জিজ্ঞাসাগুলো তা নিয়ে আলোচনা করব।

 

মোবাইল থেকে একটি ব্লগ বানাতে গেলে যে সমস্ত বিষয়গুলি আমাদের জানা জরুরী সেগুলি আপনাদের জানতেই হবে। এই কারণে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত অনুরোধ বিষয়গুলিকে পরপর বোঝার জন্য।




 

ব্লগ কি ?

 

আমরা টুক - টাক যারা ওয়েবসাইট এর সাথে যুক্ত তারা ব্লগ কথাটির অর্থ জানলেও আমরা যারা নতুন তারা এই ব্লগ কি এই বিষয়টি সম্পর্কে তেমন কোন আইডিয়া বা ধারণা নেই। শুরুতে একটি মোবাইল থেকে ব্লগ সাইট বানাতে গেলে প্রথমেই জানতে হবে ব্লগ কি ?

 

ব্লগ এর নির্দিষ্ট কোনো সংজ্ঞা বা কাকে বলে এমন কোন ধারণা আমাদের কাছে নেই। ব্লগ হল আসলে একটি পোর্টফলিও।

 

আমরা ব্লগার আমাদের ব্যক্তিগত জ্ঞান বা বিভিন্ন তথ্য এই ব্লগে লিখতে পারি। অর্থাৎ বলতে পারি এবং ব্যক্তিগত প্রয়োজনে আমরা এই ব্লগ গুলি ব্যবহার করেথাকি। 

 

কিন্তু এর অর্থ এটা’ই যে ব্লগ হল এমন একটি প্ল্যাটফরম যেখানে আমাদের জানা বিভিন্ন তথ্য অন্য মানুষদের সাহায্য করে থাকে। ব্লগ সাধারণত একটি ওয়েবসাইট এর সমতুল্য।

 

আমর যা সচরাচর ইন্টারনেটে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন তথ্য সার্চ করলে আমাদের সামনে অনেকগুলি ওয়েবসাইট এর ঠিকানা চলে আসে এবং এর থেকে যেকোনো একটিকে বেছে নিয়ে তাতে প্রবেশ করি।

 

এই সকল ওয়েবসাইট গুলোতে তথ্য দেওয়া থাকে যা আমাদের ইচ্ছাকে পূরণ করে। এই বিষয়গুলি কোন ব্যক্তি তার নিজের মতো করে লিখে রেখেছে আমাদেরকে সাহায্য করার জন্য।

 

এটি একটি ব্লগ সাইট বা ব্লগ যা আমাদের সকল কে তথ্য দেওয়ার জন্য তৈরি করে রেখেছে । তাহলে আমরা বোঝাতে পারছি যে ব্লগ হল এমন একটি মাধ্যম যেখানে আমরা আমাদের জানা যেকোন বিষয় শেয়ার করি অন্যের উপকার হবার জন্য।  আরও সহজ করে যদি বলি তাহলে দাঁড়াবে যে ব্লগ হল, একটি ওয়েবসাইট যেখানে আমরা আমাদের বিভিন্ন তথ্য বা ডাটা শেয়ারকরে থাকি

ব্লগ একাউন্ট কিভাবে খুলবো ?

 

প্রথমেই ব্লগ একাউন্ট কিভাবে খুলব এর দুটো পথের কথা বলতে পারি একটি হলো ফ্রি ভাবে আপনি একটি ব্লগ একাউন্ট খুলতে পারেন, আবার আপনি টাকার বিনিময়েও একটি ব্লগ একাউন্ট খুলতে পারেন


 

ইন্টারনেটে সবথেকে বেশি পরিমাণে জিজ্ঞাসা করা হয় যে মোবাইল থেকে কিভাবে ব্লগ বানাতে হয় বা একটি ব্লক একাউন্ট কিভাবে খুলব তাই আমি আজ ফ্রিতে কি করে একটি ব্লগ একাউন্ট খুলবেন তা বলছি।


 


ব্লগ একাউন্ট খুলতে প্রথমেই একটি জিমেইল একাউন্ট বা জিমেইল আইডি থাকতে হবে। কারণ আমরা যে ব্লগ তৈরি করব তা গুগোল এর একটি প্রোডাক্ট সুতরাং সেখানে সাইন আপ - Sing Up বা একাউন্ট তৈরি করতে গেলে প্রথমেই একটি জিমেইল একাউন্ট থাকতে হবে।




জিমেইল একাউন্ট লগিন করে একটি ব্লগ একাউন্ট তৈরি করতে তেমন কোনো সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় না। কেননা ব্লগ একাউন্ট খুলতে গেলে গুগোল এর আইডি দিয়ে সাইন ইন করে গুগলে খুঁজুন Blogger

 



ব্লগ একাউন্ট তৈরি করতে গেলে প্রথমে আপনাকে blogger.com এ গিয়ে সাইন ইন করতে হবে। প্রথমে আপনি গুগল খুলে নিয়ে ডান দিকের কর্নার থেকে সাইন ইন করতে পারেন।

 


প্রথমে একবার সাইন ইন হলে তার পাশে দেওয়া মেনু আইকন থেকে আপনি ডাইরেক্ট ব্লগার সিলেক্ট করতে পারেন অথবা সার্চ অপশনে গিয়ে আপনি blogger.com লিখে সার্চ করলে সরাসরি ব্লগ সাইটে প্রবেশ করতে পারবেন। 



আপনি ব্লগ সাইটে প্রবেশ করার পর সেখানে আপনাকে জানানো হবে একটি নতুন ব্লগ সাইট ক্রিয়েট করার জন্য। তাহলে আমরা কিভাবে ব্লগ একাউন্ট খুলব তা জানতে পারলাম। এবার চলুন জেনে নিই কিভাবে ব্লগ সাইট বানাবো।

             

 

কিভাবে ব্লগ সাইট বানাবো ?

 


প্রথমেই জানাচ্ছি, ব্লগ সাইট হল ওয়েবসাইটের মতন’ই পোর্টফলিও। সুতরাং একটি ব্লগ সাইট তৈরি করতে হলে প্রথমেই আপনাকে একটি নাম সিলেক্ট করতে হবে। 

 


ধরেন আপনি আপনার ব্লগ সাইটের নাম কি দেবেন তা এখানে লিখতে হবে। এই ব্লগ সাইটের যা নাম দেবেন তাই হবে আপনার ওয়েবসাইটের নাম।

 


আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের নাম দেওয়ার পর নেক্সট অপশনে ক্লিক করলেই আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ টি তৈরি হয়ে যাবে। কিন্তু একটি ব্লগ কিভাবে সুন্দর করে গড়ে তুলতে হয় সেটি জানতে হলে নিচের বিষয়গুলো পডতে হবে

 

 


প্রথমেই আপনি যে নামে ব্লগ তৈরি করতে চাচ্ছেন তার নামটি আপনাকে ঠিক করতে হবে এবং সেই নামের সাথে সম্পর্কিত একটি ইউআরএল - URL আপনাকে দিতে হবে। এই ইউ আর এল টি হলো আপনার ব্লগ সাইট বা ওয়েবসাইটের লিঙ্ক

 



অবশ্যই ওয়েবসাইটের লিংক টি আপনার ব্লগ এর নামের সঙ্গে সম্পর্কিত থাকলে হবে। কিন্তু একটি ফ্রিতে ব্লগ সাইট বানাতে গেলে আপনাকে অবশ্যই গুগলের দেওয়া সাবডোমেইন অর্থাৎ blogspot.com ব্যবহার করতে হবে।

 



কারণ এই blogspot.com ডোমেইন যারা নতুন কাজ শুরু করতে চান তাই গুগোল আমাদেরকে ফ্রিতে দিয়ে থাকে। অর্থাৎ যদি আপনার ওয়েবসাইটের নাম Ajker Blog হয় তবে আপনারওয়েবসাইটের ইউ আর এল হতে পারে - ajkerblog.blogspot.com কিন্তু এক্ষেত্রে অবশ্যই মনে রাখতে হব এই নামটি এভেলেবেল আছে কিনা তা দেখে নিতে হবে।

 



এবার আপনার ব্লগের URL বাছাই করা হয়ে গেলে পরবর্তীতে আপনাকে একটি অপশন দেয়া হবে যেখান থেকে আপনার পছন্দের ওয়েবসাইট বা ব্লগের ডিজাইনটি নির্বাচন করতে হবে। এই ওয়েবসাইটের ডিজাইন কে বলা হয় টেমপ্লেট। 

 



পৃথিবির বেশিরভাগ ব্লগ গুলি এই সকল টেমপ্লেট গুলি দিয়ে তৈরি করা হয়ে থাকে। সুতরাং এখানে অনেক রকম ফ্রি টেমপ্লেট আপনি পাবেন তার যেকোনো একটিকে বেছে নিয়ে আপনি সিলেক্ট করতে পারেন।

 


আপনার ওয়েবসাইটের বা ব্লগের জন্য টেমপ্লেট নির্বাচন করা হয়ে গেলে আপনার নিজে তৈরি করা URL টি কোন সার্চ ইঞ্জিন এগিয়ে সাবমিট করলেই আপনার ওয়েব সাইটের বা ব্লগের ডিজাইন অনলাইন এ দেখতে পাবেন।

 


একটি ব্লগ তৈরি করতে হলে অবশ্যই যে বিষয়ের উপর তৈরি করতে চলেছেন সেই বিষয়ের সম্পর্কে একটি ডেসক্রিপশন বা বর্ণনা আপনাকে এই ব্লগে লিখতে হবে।

 


এ বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ কথা, আপনি যদি সত্যিই একটি ব্লগ বানিয়ে সেখানে কাজ করতে চান বা মানুষকে সাহায্য করতে চান তবে অবশ্যই তার জন্য আপনাকে একটি টপ লেভেল ডোমেইন কিনে এই ব্লগ সাইটে যুক্ত করতে হবে।

 


কারণ টপ লেভেল ডোমেইন ছাড়া কোনো ব্লগ বা ওয়েবসাইট সার্চ ইঞ্জিনে উঠে আসতে পারে না। তাই যদি আপনি মনে করে থাকেন যে একটি সুন্দর ওয়েবসাইট বা ব্লগ তৈরি করবেন তবে অবশ্যই তার আগে একটি কাস্টম ডোমেইন কিনে নিতে পারেন।

 

 


মোবাইলে কিভাবে ব্লগ সাইট বানাতে হয় ?

 


ইন্টারনেটে সব থেকে বেশিরভাগ প্রশ্ন হল, মোবাইল থেকে কিভাবে ব্লগ বানাতে হয়। প্রথমেই বলি তাহলে মোবাইল একটি ছোট কম্পিউটারের সংস্করণ সুতরাং যে সমস্ত কাজ কম্পিউটারে করা সম্ভব তার ৯৮ শতাংশ কাজ আমরা মোবাইল দিয়ে করতে পারি।

 


ব্যক্তিগতভাবে আমি নিজেই মোবাইল দিয়ে আমার সমস্ত কাজ ওয়েবসাইটগুলি তৈরি করেছি এবং তা আমি মোবাইল দিয়ে ম্যানেজ করে থাকি। যদিও কোনো কোনো সময় একটু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় তবুও বেশির ভাগ কাজগুলি মোবাইল দিয়ে সম্ভব। তার জন্য কাজ গুলো জানতে হবে খুব ভালো করে।

 


আসুন তাহলে দেখি কিভাবে আমরা মোবাইল দিয়ে ব্লগ সাইট বানাতে পারি। প্রথমত বলব আমি মোবাইল দিয়ে ব্লগ বানানোর তেমন কোন কঠিন বিষয় নয় আপনি যদি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ দিয়ে ব্লগ বানানো দেখে থাকেন তা একই রকম ভাবে মোবাইলে প্রয়োগ করা যায়।


ফটো 

 

 

 

দ্বিতীয়তঃ মোবাইল দিয়ে একটি ব্লগ সাইট বানাতে গেলে আপনার মোবাইলটি অবশ্যই ডেক্সটপ মোড অন করে রাখতে হবে। কারণ ডেক্সটপ মোড অন না করলে ব্লগের অনেকগুলি অপশন আপনি ব্যবহার করতে পারবেন না সেক্ষেত্রে সমস্যা হবে।

 



তৃতীয়তঃ মোবাইল ডিভাইস থেকে ব্লগ সাইট বানাতে গেলে অবশ্যই আপনার একটি জিমেইল একাউন্ট থাকতে হবে। ঐ জিমেইল অ্যাকাউন্ট টি আপনাকে গুগল এর পেজে গিয়ে সাইন-ইন করে নিতে হবে। একবার সাইন ইন হয়ে যাওয়ার পর মেনু অপশন থেকে ব্লগার বা সার্চ অপশন থেকে ব্লগার বা Blogger.com লিখে সার্চ করতে হবে।

 



সার্চ এর পর প্রথমেই আসবে blogger.com এখানে ক্লিক করলে অটোমেটিক আপনাকে বলবে যে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য। যেহেতু আপনি নতুন তাই লেখা থাকবে ক্রিয়েট এ নিউ ব্লগ বা CREATE YOUR BLOG


 



 এখানে ক্লিক করার পর আপনার সামনে একটি নতুন উইন্ডো খুলবে যেখানে আপনাকে বলা হবে যে আপনার ব্লগের একটি নাম দিয়ে সাবমিট করার পর আপনার কাছে চাইবে যে আপনার ইউ আর এল - URL বা আপনার ওয়েব সাইটের লিংকটি কি দিতে চান। ব্লগারের নাম আর ইউ আর এল -URL একই দেওয়ার চেষ্টা করবেন।


ফটো


ওয়েবসাইটের লিংক বা URL টি দেওয়ার পর Next করলে আপনার সামনে দেখাবে যে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য কি ধরনের থিম বা ডিজাইন কোনটি আপনি বেছে নিতে চাইছেন সেখান থেকে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ডিজাইন বা টেমপ্লেট নির্বাচন করে নিতে হবে।



একবার Theme বা টেমপ্লেট নির্বাচন করা হয়ে গেলে আপনার ব্লগটি তৈরী হয়ে যাবে সুতরাং মোবাইল থেকে ব্লক বানানোর তেমন কোন কঠিন কাজ নয়।



 অনেক ব্লগাররা তাদের ব্লগগুলি মোবাইল থেকে অপারেট করে থাকে সুতরাং আপনিও আপনার মোবাইল থেকে একটি ব্লগ সাইট তৈরী করতে পারেন খুব সহজে। এক্ষেত্রে কোন সমস্যা হলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।



এক্ষেত্রে কিছু বিষয় মনে রাখা অতি প্রয়োজন তাহলো একটি ব্লগ খুলতে গেলে আপনাকে কোন টাকা দিতে হয় না কিন্তু একটি ডোমেইন কিনে আপনি এই ব্লগারের সঙ্গে যুক্ত করতে চান তবে সে ক্ষেত্রে আপনাকে একটি ডোমেইন কিনতে হবে।

যেমন - .COM  .XYZ  .INFO  . ORG  .IN  .TV  .NEWS ইত্যাদি


যদি আমার মতামত চান ? অবশ্যই আপনি একটি উন্নত মানের ডোমেইন কিনে একটি ব্লগ -Blog সাইট তৈরি করবেন কারণ একটি উন্নত মানের ডোমেইন আপনার ব্লগ সাইট কে খুব ভালভাবে পরিচয় দান করতে সহযোগিতা করবে এবং অনেক বেশি পরিমান ভিজিটর পেতে পারবেন।



আপনি যদি Google-এর blogger.com থেকে একটি ব্লগ BlogSite তৈরি করেন এ ক্ষেত্রে আপনার কোন চার্জ দিতে হয় না। কিন্তু একটি কাস্টম ডোমেইন যদি আপনি এর সঙ্গে যুক্ত করেন সে ক্ষেত্রে শুধুমাত্র ডোমেইনের জন্য আপনাকে চার্জ দিতে দিতে হয়।



আরেকটি কথা আপনি যদি যথেষ্ট পরিমাণ ভালো একটি ব্লগসাইট তৈরী করতে চান তবে অবশ্যই আপনাকে blogger.com ছেড়ে ওয়ার্ডপ্রেসে একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগ তৈরি করতে হবে।



কারণ blogger.com এ অনেক ধরনের সীমাবদ্ধতা থাকে যা আমরা ওয়ার্ডপ্রেসে খুব সহজেই পেতে পারি প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করে। কিন্তু মূল বিষয় হলো এখানে ওয়ার্ডপ্রেস অনেক ব্যয়বহুল এবং তাকে শিখতে অনেকটা সময় প্রয়োজন তাই আমরা প্রাথমিকভাবে প্রায় সমস্ত ব্লগাররাই blogger.com এ আমাদের ব্লগ তৈরি করি।



আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন যে মোবাইল দিয়ে কিভাবে ব্লক বানাতে হয়। মোবাইল ও ডেস্কটপ বা ল্যাপটপের ক্ষেত্রে একই প্রসেস শুধুমাত্র আপনার মোবাইলের ব্রাউজারটি কে ডেক্সটপ মোডে অন করে নিতে হবে।



আমি সহজ-ভাবে মোবাইল থেকে যেভাবে ব্লগ তৈরি করেছি ঠিক সেইভাবে কি করে মোবাইল থেকে ব্লক বানাতে হয় তা নিয়ে আলোচনা করলাম যদি আপনাদের বুঝতে কোথাও সমস্যা হয় তবে অবশ্যই নিচে কমেন্ট বক্সে বা ফেসবুক পেইজে যোগাযোগ করবেন।



ব্লগ কি বা মোবাইল থেকে কিভাবে ব্লক বানাতে হয় এবং ব্লগের সব খুঁটিনাটি গুলো আমরা এত সময় শিখেছি, এবার চলুন জেনে নিই কিভাবে একটি ব্লগ লিখতে হয় ক্লিক করুন




ব্লগ লেখার নিয়ম


আমাদের ব্লগ সাইট তৈরি - কিভাবে মোবাইল থেকে ব্লগ সাইট বানাতে হয় তা আমরা শিখেছি কিন্তু ব্লগ লেখার বিষয়টি অত্যন্ত জরুরী। কারণ আপনি যদি লক্ষ্য করেন দেখবেন সকলেই বলে Content Is King -কন্টেন ইজ কিং

এর অর্থ হল আপনার ব্লগের কন্টেন - Content হলো আপনার ব্লগের রাজা অর্থাৎ আপনার ব্লগের লেখার নিয়ম বা বিষয়টি যদি উপযুক্ত মানের এবং গুরুত্বপূর্ণ হয় তাহলে খুব তাড়াতাড়ি আপনার ব্লগ টি মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

আর মানুষের কাছে নিজের ব্লগ জনপ্রিয় করে তুলতে গেলে আপনাকে শিখতে হবে যে কিভাবে ব্লগ লিখতে হয় বা ব্লগ লেখার নিয়ম কি ?। 


আসুন এখন আমরা দেখি যে ব্লগ লেখার নিয়ম কি ?

একটি ব্লগ তৈরি করার যেমন নিয়ম আছে ঠিক তেমনি একটি ব্লগ পোষ্ট লেখারও অনেকগুলি নিয়ম আছে যদি সেই নিয়মগুলি আপনি মেনে একটি ব্লগ লিখেন তবে তা অনেক পরিমান দর্শক পাবেন এবং বেশ ভাল ইনকাম করতে পারবেন।



একটি ব্লগ পোস্ট লেখার অন্যতম উদ্দেশ্য থাকে যাতে অনেক বেশি দর্শকরা এসে পড়তে পারে ঠিক এই কারণে অবশ্যই দর্শকদের উপযোগী করে একটি ব্লগ পোষ্ট আমাদের লেখা প্রয়োজন। কিন্তু কিভাবে ব্লগ লিখবো এই বিষয়টি না জানার কারণে তা দর্শকদের কাছে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে না।

blogger account create, Create a blog



  কিভাবে ব্লগ লিখব 

      
প্রথমেই বলে নিচ্ছি, আপনাকে আগে খুঁজে বের করতে হবে যে দর্শকরা কি ধরনের বিষয় জানতে চাইছে। আপনি  যদি দর্শকদের এই জানতে চাওয়া বিষয়গুলিকে খুঁজে বের করতে পারেন তবে অবশ্যই আপনি সেই বিষয় নিয়ে একটি ব্লগ পোষ্ট লিখবেন।



ব্লগ সাইট থেকে ব্লগ লিখতে গেলে আপনার ব্লগের বাঁ - দিকের মেনু অপশন থেকে পোস্ট অপশন এ ক্লিক করলে আপনি সেখানে ব্লগ লেখার জায়গা পেয়ে যাবেন।



আপনি যে বিষয় নিয়ে একটি ব্লগ পোষ্ট লিখতে চাইছেন সেই বিষয়টি সম্পর্কে প্রথমে একটি শিরোনাম বা হেডিং দিতে হবে অর্থাৎ আপনার বিষয় সম্পর্কিত যেন একটি শিরোনাম বা হেডিং হয় এটি হবে একটি ব্লগ লেখার প্রথম শর্ত।


দ্বিতীয় ধাপ 
ব্লগ লেখার নিয়ম হল যে সম্পর্কে আপনি এই ব্লগ পোষ্টটি লিখতে চলেছেন সেই সম্পর্কে কমপক্ষে 200 শব্দের এমন একটি ডেসক্রিপশন  বা শর্ট বর্ণনা তৈরি করুন যা আপনার ব্লগের প্রথম দিকে থাকবে। এটি বোঝার জন্য আপনারা আমার এই ব্লগের একদম প্রথম প্যারাটি দেখে আসতে পারেন



যে বিষয়টিকে কেন্দ্র করে আপনি পোষ্ট লিখতে চলেছেন সেই বিষয়টি যেন আপনার প্রথম প্যারা'য় অবশ্যই উল্লেখ করা থাকে। এরপর ধীরে ধীরে আপনি আপনার সেই বিষয় সম্পর্কে লেখা শুরু করুন।



পোষ্টের লেখাগুলি যেন কখনোই বেশি বড় প্যারা না হয় ১৫০ থেকে ২০০ শব্দের করে একেকটি প্যারা করে করে আপনি লিখতে থাকুন। 



এইভাবে কমপক্ষে 1000 থেকে 1200 শব্দে আপনি একটি ব্লগ পোষ্ট লিখতে পারেন। ব্লগ লেখার অন্যতম নিয়ম হল অবশ্যই আপনার লেখাটির যেন পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন এবং বিষয়গুলি উপযোগী হয়। অর্থাৎ আপনি যে বিষয় নিয়ে ব্লগ লিখছেন সেই বিষয়ের বাইরে গিয়ে কখনোই অন্য কোন বিষয় নিয়ে কখনও বর্ণনা করবেন না।



যেহেতু দর্শকদের জিজ্ঞাসা বিষয়ের উপর নির্ভর করে একটি ব্লগ পোষ্ট লিখবেন সুতরাং এমন ভাবে লিখবেন যাতে দর্শকদের সমস্ত আকাঙ্ক্ষা আপনার এই ব্লগ টি পড়ে সম্পন্ন হয়।



যদি আপনার পোষ্ট করা বিষয়টি পড়ে দর্শকের সমস্ত উত্তর পেয়ে যায় তবে অবশ্যই সেই ভিজিটর বা পাঠক পুনরায় আপনার এই ওয়েবসাইটে ঘুরে ফিরে আসবে বিভিন্ন বিষয়ে জানতে।



একটি ব্লগ পোষ্ট লিখলে তার মধ্যে কমপক্ষে একটি ছবি অর্থাৎ ব্লগ সম্পর্কিত ছবি যুক্ত করবেন অবশ্যই  এতে ব্লগ দেখতে অনেকটা সুবিধাজনক হয়। আপনি চাইলে প্রতিটি স্টেপ এর জন্য একের অধিক ছবি ব্যবহার করতে পারেন।



ব্লগ পোস্ট লিখা সময় অবশ্যই ব্লগের মধ্যে আপনার মূল শব্দটি কে কয়েকবার  বোল্ড করে দিন এতে দর্শকের আকর্ষণ বেড়ে যায়। আপনার ব্লগ পোস্টের মধ্যে কমপক্ষে দুই থেকে তিনটি হেডিং যুক্ত করুন। আশা করি কি করে হেডিং যুক্ত করতে হয় বিষয়গুলি আপনি জেনে গিয়েছেন।



আপনার লিখা ব্লগ পোস্টি এমন সুন্দর হবে যা পড়ে কোন দর্শক তার সম্পূর্ণ পরিতৃপ্তি পাবেন যদি তা সম্ভব হয় তবে আশাকরি অবশ্যই আপনার ব্লগ লেখার নিয়ম কি আপনি অর্জন করতে পেরেছেন।



একটু উদাহরণ  দিচ্ছি ধরুন আপনি এখানে প্রবেশ করেছিলেন যে কিভাবে মোবাইল দিয়ে একটি ব্লগ সাইট বানাতে হয় সেটি জানার জন্য। কিন্তু লক্ষ্য করুন আমি প্রথম থেকেই আলোচনা করে এসেছি যে ব্লগ   কি? একটি ব্লগ একাউন্ট কি করে খুলবো? কিভাবে ব্লগ সাইট বানাবো? তারপর লিখেছি মোবাইল থেকে কিভাবে ব্লগ সাইট বানাতে হয়? 



এখান থেকে আশা করি আপনি বুঝতে পারছেন যে আপনার একটি জিজ্ঞাসা বিষয়ে আপনি একটি পোস্ট জানতে বা পড়তে এসে সমস্ত বিষয়গুলি আপনি জানতে পারবেন বা বুঝতে পারলেন এতে আপনার একটি আইডিয়া হল।


আপনি এইভাবে একটি ব্লগ পোস্ট করলে দর্শকরা অনেক খুশি হয় এবং প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ে তাদের সমস্ত বিষয়গুলি বোঝার চেষ্টা করে সুতরাং আপনিও আপনার ব্লগ লেখার নিয়ম এটিকে অবশ্যই সংযুক্ত করবেন।



আমার মতামত : আমি স্বীকার করেছি যে আমি ব্যক্তিগতভাবে মোবাইল থেকে ব্লগ বানিয়ে তা ব্যবহার করি এই কারণে আমার জন্য আপনাদের কাছে এটিকে বলা বা বোঝানো অনেক হয়তো একটু সহজ হয়ে গেছে।

আবারো বলি মোবাইল থেকে কিভাবে ব্লগ সাইট বানাতে হয় এই বিষয়টি অনেকেই জানতে চাই তাই আজ আমি এটি আমার মত করে সহজ ভাষায় বর্ণনা করেছি যদি আপনাদের সত্যি ভালো লেগে থাকে বা উপকার হয় তবে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

আমি খুব সাবলীল ভাষায় যেহেতু এই ব্লগের সমস্ত বিষয় গুলি আলোচনা করেছি তাই হয়তো আপনাদের ভালো লাগবে এবং অবশ্যই এই সম্পর্কে আরও কোন জিজ্ঞাসা থাকলে তা কমেন্ট বক্সে জানাতে ভুলবেন না। 

আপনি যদি কোন কিছুই না বোঝেন তাহলে, আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন আমরা আপনাকে সম্পূর্ণ ব্লগ সাইট তৈরি করে দেবো কথা দিচ্ছি।


How to make money from blogs ।

ব্লগিং থেকে কীভাবে টাকা উপার্জন করবেন । 

ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায়


Post a Comment

Previous Post Next Post

ads p1

ads p2