ads

 আজকে এই পোস্টের মাধ্যমে জানানো হবে যারা বাংলা আর্টিকেল লিখে ইনকাম করুন জবটি করতে চান তাদের জন্য এই পোস্টটি করা হয়েছে। আজ আমার এই পোস্টটি পড়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন কিভাবে বাংলা আর্টিকেল লিখতে হয় এবং আমাদের সকল রুলস গুলো জানতে পারবেন। আমাদের এই সকল শর্ত গুলো মেনে চাকরি করতে হবে। চলুন তাহলে শর্তগুলো জেনে নেয়া যাক -

Ways to learn content writing, 15 Tips for Writing Articles, rules of article writing,

আমাদের এখানে জবের আবেদন করার আগে আমাদের শর্তাবলী গুলো পড়ে নিন ভালো করে যাতে পরবর্তীতে আপনার কোন সমস্যা না হয়। এর বাহিরে যদি আমাদের সাথে কোন কথা বলার প্রয়োজন পড়ে তাহলে বলতে পারবেন কোন সমস্যা হবে না চলুন তাহলে বিস্তারিত শুরু করা যাক


পোস্ট করার শর্ত সমূহ

শিরোনাম বা টাইটেল দিতে হবে ৫ থেকে ৯ ওয়ার্ডের ভিতরে দুইটা বা তিনটা ভাগ করে দেওয়া। যেমন: শিরোনাম লেখার নিয়ম | কিভাবে আকর্ষণীয় টাইটেল লিখতে হয় । টপিক রিলেটেড টাইটেল নির্বাচন করার উপায় ২০২২


ফিউচার ইমেজ বা থামনেল ব্যবহার করা পোস্ট রিলেটেড প্রতিটি পোস্টের টাইটেল নির্বাচন করা হয়ে যাওয়ার পর টাইটেলটি কপি করে নিয়ে গুগলে সার্চ করুন। সার্চ হয়ে যাওয়ার পর ইমেজে ক্লিক করুন এবং পোস্ট রিলেটেড ছবিগুলো থেকে আকর্ষণীয় একটি ছবি বা থামনেল নির্বাচন করুন অথবা আইডিয়া নিয়ে আপনি একটি ছবি তৈরি করুন। সাইজ - ৭৬০ * ৪২০ পিক্সেল তৈরি করতে হবে। ফিউচার ইমেজ তৈরি করার জন্য ক্যানভা ফটোশপ দিয়ে করতে পারেন।



ভূমিকা বা শর্ট ডিসক্রিপশন তৈরি করা পোস্ট রিলেটেড - আপনার পোস্টের ভিতরে যা আছে তা ১৫০ থেকে ২০০ ওয়ার্ডের ভিতর পাঠকদের বুঝাতে হবে। এই ডিসক্রিপশন টা খুবই আকর্ষণীয় হওয়া জরুরি কারণ এটার উপরই নির্ভর করবে আপনার পুরা পোস্টটা পাঠক পড়বে কিনা।



প্যারাগ্রাফ - ভূমিকা লেখা শেষ হয়ে গেলে আপনার মূল টপিকস এর উপর ডিসক্রিপশন লেখা শুরু করতে হবে। সেখানে ছোট ছোট প্যারা করে লিখতে হবে প্যারা গুলোর শিরোনাম রাখতে হবে প্রয়োজন অনুযায়ী। প্রত্যেকটি প্যারা ৩/৪ লাইন করে রাখতে হবে। যেমন আমাদের এই পোস্ট টি দেখুন।


আর্টিকেল বডি - প্রত্যেকটি পোস্টে সর্বনিম্ন ৮ টি প্যারাগ্রাফ শিরোনাম বা সাবহেডিং দেওয়া উচিত এবং প্রত্যেকটি পোস্টে ১২/১৫ টি প্যারা রাখা খুব জরুরী। একটি পরিপূর্ণ আর্টিকেলে বা পোস্টে সব মিলিয়ে ১৪০০ বা ২০০০ বা অধিক শব্দ থাকা দরকার।

কোন সময় পোস্টে বৈশিষ্ট্য সুবিধা-অসুবিধা লেখার সময় লাইন এর পর লাইন বুলেট বা লিস্ট আকারে দিতে হবে।




লিংক ইনসার্টপ্রতিটি পোষ্ট এর ভিতর প্রাসঙ্গিক লিংক ইনসার্ট করা। যতে পাঠকরা আপনার লেখা প্রাসঙ্গিক অন্য পোস্ট গুলো পড়তে পারে বা সহজে যেতে পারে  এর ফলে আপনার ভিজিটর সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। এছাড়া কোন ইনফরমেশন সঠিকভাবে জানানোর জন্য কোন ওয়েবসাইটের লিংক করে দেওয়াটা জরুরি যেন তারা সহজে বিস্তারিত ভালোভাবে জানতে পারে।



পোস্ট করার সময় আপনার আগের করা পোস্ট এর ভেতর থেকে সর্বনিম্ন ৩ সর্বোচ্চ ৬ টি পোষ্ট ইনসার্ট লিংক করে দিতে হবে অবশ্যই।


আরো পড়ুন


 


আমি / আপনি শব্দের ব্যবহার - একটি পরিপূর্ণ মানসম্মত আর্টিকেল লেখার ক্ষেত্রে আমি বা আপনি এ ধরনের শব্দ ব্যবহার করুন যাতে পাঠকরা বুঝতে পারে তাদের সাথে গল্প করতেছেন। এর ফলে আপনার পাঠকরা মনোযোগ দিয়ে পোষ্ট পড়বে আর কথাগুলো শুনবে।




ফোকাস কিওয়ার্ড - আপনার পুরো আর্টিকেল এর ভেতর থেকে অন্তত একটি বা সর্বোচ্চ তিনটি ফোকাস কীওয়ার্ড নির্বাচন করুন। এই ফোকাস কিওয়ার্ড গুলো সম্পূর্ণ পোস্টের ভিতরে ১০/১৫ বার ব্যবহার করুন।



এখন কোন মানুষ যদি গুগলে সার্চ করে সেটা বাংলা বা ইংলিশে করে সেক্ষেত্রে আপনি কি করবেন? আপনি দুই ভাবে ফোকাস কিওয়ার্ডগুলো রাখবেন ১০/১৫ বার বাংলায় আবার ১০/১২ বার  ইংরেজিতে রাখবেন। সাবধান ফোকাস Keyword গুলো সম্পন্ন পোস্ট লিখে রাখবেন এমন কিন্তু করা যাবে না কখনো!




পোষ্ট অ্যালাইনমেন্ট - আপনার লেখাটির শেষ হয়ে গেলে পুরা লেখা গুলো সিলেক্ট করে জাস্টিফাই অ্যালাইনমেন্ট রেখে দিবেন যাতে লেখাগুলো দেখতে বইয়ের লেখা গুলোর মত মনে হয়। তাহলে পাঠকদের পোষ্ট পড়তে ভালো লাগবে।




কনক্লিউশন - আপনার আর্টিকেলটি শেষ হয়ে গেলে আপনার নিজস্ব মতামত প্রকাশ করবেন ৪/৫ লাইন এর ভেতর এবং পাঠকদের কাছ থেকে একটি মন্তব্য জানতে চাবেন পোস্টটি তার কেমন লেগেছে । যে লেখক-পাঠকের কাছ থেকে এই মন্তব্য ভালো-মন্দ যেকোনো একটি কমেন্ট পাবে সেই হচ্ছে আসল লেখক।



পাঠকের প্রয়োজনীয়তা মাথায় রাখা - আপনি আর্টিকেলটি লিখছেন পাঠকের জন্য আর পাঠক যদি আপনার পোস্ট বা আর্টিকেল নাই পড়ে, তাহলে আপনার লিখাটা পুরাই বৃথা।

এমন অযোগ্য পোস্ট করা থেকে বিরত থাকুন! পাঠকের জন্য গ্রহণযোগ্য পোস্ট করার চেষ্টা করুন তাহলে আপনার ভিজিটর বেশি পাবেন পরবর্তী সময় আপনার পোস্টটি পড়তে আসবে সেই পাঠক।


আরো পড়ুন

পোস্ট বাতিল হওয়ার কারণ -

1.কোন ইনফরমেশন ভুল দিলে

2.কোন আর্টিকেলে কপিরাইট পেলে

3.টপিকস ও কন্টেনের কোন মিল না পেলে

4.শর্ত অনুযায়ী পোস্টগুলো সাজানো না হলে



সতর্কীকরণ: আপনাদের কার্যকলাপ যদি পর্যাক্রমে এভাবে চলতে থাকে তাহলে আপনাদের আইডি সাসপেন্ড হয়ে যাবে বা ব্লক হয়ে যাবে। সাসপেন্ড হলে লাইফ টাইম এর জন্য বাতিল হয়ে যাবে আর ব্লক করা হলে ৭/১৫ দিন জন্য করা হবে কাজ মনোযোগ দিয়ে করার জন্য অথবা শিখতে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।



আমাদের এই সকল শর্তবালি গুলো মেনে যারা জব টি করতে চাচ্ছেন তারা আবেদন করুন। আজ এখানেই শেষ করছি বিস্তারিত জানতে আমাদের অন্যান্য পোস্টগুলো পড়ুনআমাদের সাথে যোগাযোগ করতে নিচে কমেন্ট করুন অথবা ফেসবুকে যোগাযোগ করুন অথবা আমাদের কল করুন।

Post a Comment

Previous Post Next Post

ads p1

ads p2